উপেক্ষিত বৈজ্ঞানিক রাধানাথ শিকদার

উপেক্ষিত বৈজ্ঞানিক রাধানাথ শিকদার – বিশ্বায়নের গতিময়তা ও কর্মচাঞ্চল্যে জনমানস এখন বহুলাংশে বিক্ষিপ্ত। ফিরে দেখার সময় কম। শিল্প, সংস্কৃতি, সাহিত্য, বিজ্ঞান ইত্যাদি বিষয়ে আমাদের প্রাচীন উৎকর্ষ ও অবদানের কথা আমরা সেভাবে মনে রাখিনি, স্বীকৃতি জানাই নি। সে অবকাশও আমাদের নেই।…
দীপক সেনগুপ্ত

This entry was posted in Society, Technology. Bookmark the permalink.

4 Responses to উপেক্ষিত বৈজ্ঞানিক রাধানাথ শিকদার

  1. AMIYA GOPAL MANDAL says:

    লেখাটি এক নিঃশ্বাসে পড়তে হল। শুরু করে এর ভেতরে না ডুবে উপায় ছিল না। এত তথ্য সংপৃক্ত লেখা পড়ে মুগ্ধ হলাম। এটা বলা যায় একটা ডক্টরাল থিসিস এর সিনপ্সিস। লেখককে অসংখ্য ধন্যবাদ এমন একটি অসাধারণ অচর্চিত বিষয়ে আমাদের জ্ঞান বৃদ্ধি করালেন। ভবিষ্যতে তাঁর অনুরূপ গবেষণামূলক প্রবন্ধ এর আশায় থাকলাম।

    অমিয় গোপাল মণ্ডল

  2. Suprabhat Mukhopadhy, Asansol. says:

    Though it’s a beautiful writing but may​ I ask to ur honour in some contradictory points where it is described that scientist Radha Nath Sikdar was born​ in Jorasanko Sikdar’s Bramhin family, again at the end it is written,he didn’t follow religious custom of Christinity. Pl. illustrate.

    • Anonymous says:

      প্রিয় সুপ্রভাত মুখোপাধ্যায়

      আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ পরস্পর বিরোধী তথ্যটি ধরিয়ে দেবার জন্য। আসলে কয়কটি পংক্তি বাদ গিয়ে ভিভিয়ান ডিরোজিয়োর সঙ্গে রাধানাথের তথ্য মিশে গিয়ে এই বিপত্তি। অবশ্য রাধানাথ পরে খৃষ্টধর্ম গ্রহণ করেছিলেন এই তথ্যটিও নতুন করে যোগ করে আমি Web Master-কে অনুরোধ করছি প্রয়োজনীয় সংশোধনটি করে দেবার জন্য। মূল তথ্যটি হবে -

      “ডিরোজিয়োর (১৮০৯-১৮৩১) প্রতক্ষ্য প্রভাব পড়েছিল রাধানাথের ওপর। ডিরোজিয়োর জন্ম ভারতে এবং জন্মসূত্রে প্রোটেস্টান্ট খ্রীষ্টান হলেও খৃষ্টধর্ম তার মনে তেমন রেখাপাত করে নি। তিনি ছিলেন সব ধরণের প্রাতিষ্ঠানিক ধর্ম বিরোধী মুক্ত মনের মানুষ। রাধানাথেরও ধর্ম সম্বন্ধে কোন গোড়ামি ছিল না। ইসলাম বা হিন্দু কোন ধর্মের দ্বারাই তিনি প্রভাবিত হন নি। অকৃতদার রাধানাথ সারা জীবন শুধু কাজ নিয়েই ব্যস্ত থেকেছেন। রাধানাথ পরে খৃষ্টধর্ম গ্রহণ করেছিলেন। চন্দননগরে সাহেবদের কবরস্থানে তার কবর আজও রয়েছে। রাধানাথ ইংরাজিতে তার নামের বানান লিখতেন Radhanath Sickdhar.”

      পরিশেষে জানাই আপনাদের মত মনস্ক পাঠকদের সাহায্যেই ‘অবসর’ সমৃদ্ধতর হবে।

      দীপক সেনগুপ্ত।

    • Anonymous says:

      প্রিয় সুপ্রভাত মুখোপাধ্যায়

      আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ পরস্পর বিরোধী তথ্যটি ধরিয়ে দেবার জন্য। আসলে কয়কটি পংক্তি বাদ গিয়ে ভিভিয়ান ডিরোজিয়োর সঙ্গে রাধানাথের তথ্য মিশে গিয়ে এই বিপত্তি। অবশ্য রাধানাথ পরে খৃষ্টধর্ম গ্রহণ করেছিলেন এই তথ্যটিও যোগ করে আমি Web Master-কে অনুরোধ করছি প্রয়োজনীয় সংশোধনটি করার জন্য। মূল তথ্যটি হবে -

      “ডিরোজিয়োর (১৮০৯-১৮৩১) প্রতক্ষ্য প্রভাব পড়েছিল রাধানাথের ওপর। ডিরোজিয়োর জন্ম ভারতে এবং জন্মসূত্রে প্রোটেস্টান্ট খ্রীষ্টান হলেও খৃষ্টধর্ম তার মনে তেমন রেখাপাত করে নি। তিনি ছিলেন সব ধরণের প্রাতিষ্ঠানিক ধর্ম বিরোধী মুক্ত মনের মানুষ। রাধানাথেরও ধর্ম সম্বন্ধে কোন গোড়ামি ছিল না। ইসলাম বা হিন্দু কোন ধর্মের দ্বারাই তিনি প্রভাবিত হন নি। অকৃতদার রাধানাথ সারা জীবন শুধু কাজ নিয়েই ব্যস্ত থেকেছেন। রাধানাথ পরে খৃষ্টধর্ম গ্রহণ করেছিলেন। চন্দননগরে সাহেবদের কবরস্থানে তার কবর আজও রয়েছে। রাধানাথ ইংরাজিতে তার নামের বানান লিখতেন Radhanath Sickdhar.”

      পরিশেষে জানাই আপনাদের মত মনস্ক পাঠকদের সাহায্যেই ‘অবসর’ সমৃদ্ধতর হবে।

      দীপক সেনগুপ্ত।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>