সৈয়দ মুজতবা আলী স্মরণে : “দেশে বিদেশে”

সৈয়দ মুজতবা আলী স্মরণে : “দেশে বিদেশে” – বাংলা সাহিত্যে খোশগল্প, মজলিসী এবং আড্ডা রসের একটি ধারা ছিল, কিন্তু খোশগল্প, আলী সাহেবের রচনায় শিল্পসুষমামণ্ডিত হয়ে দিল্ তর্ করা যে খুশবাই এনে দিয়েছিলেন- বাংলা সাহিত্যের কুতুব মিনার “ দেশে বিদেশে” র মাধ্যমে, তা ভগীরথের শিবের জটার থেকে গঙ্গা আনার মতই তুলনীয়।…
রামকৃষ্ণ ভট্টাচার্য সান্যাল

This entry was posted in literature, Opinion and Discussion. Bookmark the permalink.

20 Responses to সৈয়দ মুজতবা আলী স্মরণে : “দেশে বিদেশে”

  1. Kamal Das says:

    খুব ভাল লাগল। আরও নানা লেখা চাই।

  2. খুব ভালো লাগলো। এক নিশ্বাসে পড়লাম। সৈয়দ মুজতবা আলীর উপর আরো লেখা পড়তে চাই।

  3. এই সমুদ্রযাত্রা চলতে থাকুক… আলি সাহেব আমার প্রিয়তম রম্যরচনাকার।

  4. সূর্যনাথ ভট্টাচার্য says:

    ঘনাদা গঙ্গাজলেই গঙ্গাপূজা করেছেন।

  5. Ramkrishna Bhattacharya says:

    হ্যাঁ ভাই সূর্য

    এর বেশী আমি পারি না।

    তুমি চেষ্টা করো অন্যরকম ভাবে লিখতে। উপকৃত হবো।

  6. Kaushik Roychoudhury says:

    Darun laaglo, alisagare satar katar janye unmukh hoye thaklaam.

  7. শিবাংশু says:

    ঘনাদা,
    গৌরচন্দ্রিকাটিতে হার্মোনিয়ম, বাঁশি আর কর্নেটে স্কেল বাঁধার আভাস পাচ্ছি । অপেক্ষা করছি। আসলে বহুকালের সাধ সিতুমিঞার ‘দেশেবিদেশে’ নিয়ে একটা কিছু নামাই। তার আগে এই ব্রাহ্মণ বিরিয়ানির কী পাক দিচ্ছেন সেটা দেখে নেওয়া দরকার। মাশাল্লা……. :-)

  8. Rajen Chatterjee says:

    খুব ভাল লাগল।

  9. suchandra says:

    দেশে বিদেশে প্রথম পড়ি কৈশোরে, সেই থেকে আমার সদাসংগী, মন ভালো রাখার ওষুধ।
    “জোয়ান শওম
    জসেরো জিন্দেগী দুবারা কুনম___”

  10. Atanu Kumar says:

    স্কুলের সিলেবাসে “দেশে বিদেশে”র একটা ছোট্ট অংশ পড়ে এত ভাল লাগে যে তক্ষুণি লাইব্রেরি থেকে গোটা বইটা তুলে গলাধঃকরণ করি। ঘনাদার লেখা পড়ে বইটা ফিরে পড়ার ইচ্ছে চাগিয়ে উঠল।

  11. Ramkrishna Bhattacharya says:

    সব্বাইকে ধন্যডোগ

  12. Bhaskar Bose says:

    কিছুদিন আগেই স্কুল-শিক্ষকদের ভূমিকা নিয়ে কথা হচ্ছিল। ১৯৭৪ সালে, আমরা যখন এইটে পড়ি, তখন স্কুলে একটি শোকসভার আয়োজন হল, মুজতবার মৃত্যু নিয়ে। সেই শোকসভাতে আমাদের শিক্ষকদের কাছে মুজতবার বিভিন্ন বইয়ের নাম, তাঁর লেখার কথা শুনেই পড়তে উৎসাহিত হই।

    রামকৃষ্ণ বাবুর এই লেখাটিও সেইভাবে আরো অনেক নতুন প্রজন্মের পাঠককে মুজতবা অনুরাগী করে তুলবে, এই আশা রাখছি।

    সরস ভাষার এই লেখাটি খুবই সুখপাঠ্য, আশা করছি পরবর্তী সংখ্যা গুলিও আমরা আরো অনেক অজানা তথ্যের সন্ধান পাব।

  13. অনিন্দিতা গুহ says:

    দেশে-বিদেশে’ আমার প্রিয় সাহিত্য। আশা করি পরের সংখ্যায় ‘দেশে-বিদেশে’ সম্বন্ধে আরো জানতে পারব।
    এক জায়গায় একটু খটকা লাগল। আপনি লিখেছেন –
    “রসসাহিত্যের ধারা যখন ধীরে ধীরে শুকিয়ে আসছে- ঠিক তখনই “দেশ” পত্রিকায় ধারাবাহিক ভাবে এই লেখাটির আবির্ভাব। সাহিত্যের শুকিয়ে ওঠা নদী, খাল, বিল, হাওর ভরে উঠলো রসসাহিত্যের মিষ্টি জলে”।
    কিন্তু সেই সময়ের, অর্থাৎ ১৯৪৭-৪৮ সালের আগে ও পরে, বাংলা সাহিত্যের দুই রাম, পরশুরাম ও শিবরাম, দুজনেই তাঁদের তূণীর থেকে পাঠকদের একের পর এক সরস সাহিত্য উপহার দিয়ে গেছেন। তাই আমার প্রশ্ন, রসসাহিত্যের ধারা শুকিয়ে আসছিল, সেটা কতটা সঠিক?

  14. শুভেন্দু প্রকাশ চক্রবর্তী says:

    আমার এই কমেন্ট আলি সাহেবের লেখার বিষয়ে নয়, রামকৃষ্ণবাবুর আলিসাহেবের পরিচিতির, কী বলবো, ভাষা আসছে না আঙ্গুলের ডগায়, শিবাংশুবাবুর কমেন্টে আমি ডিটো দিলাম। এই ‘গৌরচন্দ্রিকা’ আপনি আপনার কর্ম ক্ষেত্রের জ্ঞান সুন্দরভাবে কাজে লাগিয়েছেন, “চিকিৎসকরা’ বাধ্য আপনার সামগ্রী তেলেভাজার মতো খেতে।

  15. ঋজু গাঙ্গুলি says:

    নেশাটা ভালোই ধরালেন ঘনাদা। এবার এই বিপুল রত্নাকর থেকে আপনি মণিমুক্তো সাপ্লাই বন্ধ করে দিলে কিন্তু দস্যু হয়ে হামলা করব, এও বলে রাখলাম।

  16. Supriya Gamgopadhyay says:

    Dese Bidese aamar mon kharaper osoodh bohukaal theke. Apni je ei liner eto baro daaktar ta jene ekdiun visit korar ichhe roilo. Namaskar. 9434872815

  17. এটার সঙ্গে আছি… আলি সাহেব বলে কতা!

Leave a Reply

Your email address will not be published.

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>