বিবিধ প্রসঙ্গ: খেতাব

খেতাব: এক বন্ধুকে সেদিন বলেছিলাম, আমি দাদার সঙ্গে দেখা করতে যাবো ।
“সৌরভ গাঙ্গুলি! তার সঙ্গে তোমার কি দরকার পড়ল ?”
আজকাল পশ্চিমবঙ্গে ‘দাদা’ মানে সৌরভ গাঙ্গুলি । ‘দিদি’ মানে মমতা ব্যানার্জী ।…
সুজন দাশগুপ্ত

This entry was posted in Opinion and Discussion, Society. Bookmark the permalink.

16 Responses to বিবিধ প্রসঙ্গ: খেতাব

  1. Pushpendu Sundar Mukherjee says:

    সাবাশ ভায়া| এই ধরণের লেখা পাওয়া দুস্কর হয়েছে| চালিয়ে যাও|

    • খুব ই ভালো লাগলো লেখাটা। এমন সাবলীল আর এমন ব্যাতিক্রমি লেখার জন্যে লেখককে আর অবসর ডট নেট কে অনেক অনেক সাধুবাদ জানাই…

  2. Arnab Chatterjee says:

    Great piece. Would like to see more.

  3. Sharmila Sen says:

    Beautiful tongue-in-cheek essay in that inimitable style! Fantastic!

  4. Bijan Bandyopadhyay says:

    একবারে নতুন স্বাদের এই লেখাকে সাধুবাদ জানাই। লেখাটা এত ঝরঝরে যে শেষ করার আগে থামা অসম্ভব। শুধটু “খেতাব” নাম টা নিয়ে আমার একটু খটকা লাগছে। আমার ধারণা ছিল “রায়ে বাহাদুর” বা british দের Lord ইত্যাদি খেতাব। সাধারণ ভালবেসে যে নাম দিয়ে থাকে তাকে কি খেতাব বলা চলে? লেখক উত্তর দিলে খুশি হব।

    • সুজন দাশগুপ্ত says:

      মন্তব্য রাখার জন্যে সবাইকে ধন্যবাদ।
      বিজনবাবু, প্রশংসা করার পর প্রশ্ন করে আমায় প্যাঁচে ফেললেন! সত্যি কথা বলতে কি, এই হালকা লেখার নাম খুঁজতে গিয়ে আমি হন্যে হয়েছি। মনে এসেছে ‘জন-নাম’, ‘ভালোবেসে নাম’, ‘লোক-পরিচিতি’ – আরও কত কি! ভাল কিছু পেলেই ‘খেতাব’কে বিদায় দেব।

  5. Sumit Roy says:

    “খেতাব = উপাধি = নামের সহিত প্রযোজ্য বিশেষণ; নামচিহ্ন; উপনাম” – বঙ্গীয় শব্দকোষ| অবশ্য এই মতে “মড়াখেগো”-টাও খেতাব হতে পারতো, যদি “প্রযোজ্য”-তা নিয়ে মড়াখেগোরা স্বয়ং তকরার না করতেন। অতএব সুজনবাবু এ নিয়ে অহেতুক দুশ্চিন্তায় কালক্ষয় না করে আমাদের এমনতরো সুললিত আরো কিছু লেখা উপহার দিতে চেষ্টিত হতে থাকুন।

  6. Bijan Bandyopadhyay says:

    শ্রদ্ধেয় সুমিতবাবু
    আমার প্রশ্নের উত্তর আপনি দিয়ে দিয়েছেন – ধন্যবাদ। আমি বঙ্গীয় শব্দকোষ পড়িনি – স্বীকার করে নিচ্ছি । আমি শুধু চলতি অর্থে খেতাব বলতে যা বুজি – তাই লিখেছিলাম। তবে লেখককে আমি কোন ভাবেই “দুশ্চিন্তায় কালক্ষয়” করাতে চাই নি – আশা করি বিস্বাস করবেন। আমার মতামতে অজান্তে সেরকম কোনো ইঙ্গিত থাকলে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি । আমিও আর এ রকম লেখার আশা নিয়ে বসে থাকবো
    বিজন বন্দ্যোপাধ্যায়

  7. খুব ই ভালো লাগলো লেখাটা। এমন সাবলীল আর এমন ব্যাতিক্রমি লেখার জন্যে লেখককে আর অবসর ডট নেট কে অনেক অনেক সাধুবাদ জানাই…

  8. Alok Chakrabarti says:

    সুজন: তোমার খেতাব লেখাটি পড়ে খুব ভালো লাগলো। এই রকম রম্য রচনা পড়তে খুবই ভালো লাগে। পুরোদমে লেখা চালিয়ে যাও।

  9. Bhaskar Bose says:

    অনবদ্য!! নতুন ধরণের লেখা। নতুন চিন্তার খোরাক।

  10. সুরজিৎ ব্যানার্জ্জী says:

    অবসর পত্রিকা পাঠ আমার অন্যতম বিনোদন। সুমিত রায়ের আজকের প্রতিবেদন খুব ভাল লাগল।

  11. তনুশ্রী চক্রবর্ত্তী says:

    অসাধারণ ভালো লেখা , খুব উপভোগ করলাম

  12. ঋজু গাঙ্গুলি says:

    ভরপুর উপভোগ করলাম লেখাটা, আর শেষের লাইনটা তো পুরো “গুরুবচন”!

  13. পীযূষ কান্তি দাস says:

    নামের পিছনে ছুটে বেড়াতে বা আপনার নামকে অক্ষ য় করে রাখতে কত কত মানুষের কত রকমের প্রয়াস।ছোটবেলা থেকে এরকম অনেক কিছু দেখে ও এসেছি।কিন্তু সুজনবাবু তার খেতাব গল্পে যাদের কথা বলেছেন তাঁদের যে পরিচিত তা সার্বজনীন।
    তবে তাঁদের অস্তিত্বও যে দিনের পর দিন রীতি মতো খারাপের দিকে যাচ্ছে তা ও সুজনবাবু সুন্দর ভাবে প্রকাশ করেছেন।
    ধন্যবাদ সুজন বাবু।

Leave a Reply to পীযূষ কান্তি দাস Cancel reply

Your email address will not be published.

You may use these HTML tags and attributes: <a href="" title=""> <abbr title=""> <acronym title=""> <b> <blockquote cite=""> <cite> <code> <del datetime=""> <em> <i> <q cite=""> <strike> <strong>